টাইগারদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু হয়ে গেছে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের উদ্দেশে আগে দেশ ছেড়েছে মাশরাফিরা। তার আগে গা গরম করতে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে মাশরাফি বাহিনী।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন ১৭ জন ক্রিকেটার। দলে থাকা ১৯ ক্রিকেটারেরই একসঙ্গে যাওয়ার কথা ছিল। বুধবার সন্ধ্যায় স্বপরিবারে এমিরাটসের একটি ফ্লাইটে আয়ারল্যান্ডে যাত্রা করেন দেশ সেরা এই অলরাউন্ডার।

দুদিন আগে বাংলাদেশ বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়া খেলোয়ারদের ফটোসেশনেও সাকিব ছিলেন না। তার অনুপস্থিতি নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। সাকিব কেন থাকেননি, সেটির সদুত্তর এখনো মেলেনি। তদুপরি মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে সেই বিতর্কের আগুনে আবার ঘি ঢেলেছেন তাঁর স্ত্রী উম্মে আহম্মেদ শিশির। এই বিতর্কের রেশ না কাটতেই আরেক জল্পনা শুরু।

দলের সবার সঙ্গে সাকিবের একই ফ্লাইটে যাচ্ছেন না যাওয়া নিয়ে কানাঘুষা শুরু হয়েছে। অনেকে এ নিয়ে তার সমালোচনাও শুরু করে দিয়েছেন। বলছেন, সাকিবের কাছে পরিবারই সব, তাই তো সহ-খেলোয়ারদের সঙ্গে না গিয়ে যাচ্ছেন নিজের মতো করে।

তবে আসল খবর হচ্ছে এই জায়গাটায় সাকিবের দোষ দেয়াটা ঠিক হবে না। এখানে তাঁর কিছুই করার নেই। সাকিব আয়ারল্যান্ডে যাচ্ছেন তাঁর পরিবার নিয়ে। সাকিবের পরিবারের টিকিট পাওয়া যায়নি। শুধু বিশ্বকাপে স্কোয়াডে থাকা খেলোয়াড় ও টিম ম্যানেজমেন্টের টিকিট দিয়েছে আইসিসি।

আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট শেষে আর দেশে ফিরবেন না স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। ইংল্যান্ডে গিয়ে নেবেন চূড়ান্ত ধাপের প্রস্তুতি। ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের জন্য তো বিশ্বকাপ স্কোয়াডের ১৫ জনের বাইরে আরো চার ক্রিকেটার যোগ করা হয়েছে।

ত্রিদেশীয় সিরিজের সূচি:

৫ মে ২০১৯- আয়ারল্যান্ড বনাম উইন্ডিজ, ক্লনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
৭ মে ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম উইন্ডিজ, ক্লনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
৯ মে ২০১৯- আয়ারল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ, ম্যালাহাইড ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
১১ মে ২০১৯- আয়ারল্যান্ড বনাম উইন্ডিজ, ম্যালাহাইড ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
১৩ মে ২০১৯- বাংলাদেশ বনাম উইন্ডিজ, ম্যালাহাইড ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
১৫ মে ২০১৯- আয়ারল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ, ক্লনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।
১৭ মে ২০১৯- ফাইনাল, ম্যালাহাইড ক্রিকেট ক্লাব মাঠ।