12,818 total views, 3,552 views today

১৫ এপ্রিল বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা করেছে এবারের বিশ্বকাপের সম্ভাব্য দাবিদার ভারত। ঘোষিত স্কোয়াড অনেককেই করেছে খুশি আবার অনেককেই অখুশি। তবে ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়ে ভিন্নধরনের এক খবরে আলোচনায় এসেছেন একসময়ের বলিউড কাঁপানো অভিনেতা ঋষি কাপুর।

হয়তো অনেকেই ব্যাপারটা লক্ষ্য করেছিলেন কিন্তু কেউ বিষয়টি নিয়ে খুব একটা চিন্তা ভাবনা করেননি ও বলেননি কিন্তু ঋষি কাপুর করেছেন ও বলেছেন। আর বিষয়টি হলো ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে চান্স পাওয়া ১৫ জন ক্রিকেটারের ১৩ জনের গালভর্তি দাড়ি! কিন্তু, কেন!

ছবিতে একটা কমন ফ্যাক্টর। অনেকেই নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছিলেন ব্যাপারটা। নেহাতই স্টাইল স্টেটমেন্ট। ভারতীয় ক্রিকেট দলে এখন এটাই নতুন ট্রেন্ড। বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন দলের প্রায় বেশিরভাগ ক্রিকেটার গাল ভর্তি দাড়ি রাখেন। অধিনায়কের থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে কি না বলা মুশকিল।

কিন্তু দলের প্রত্যেকের মধ্যে দাড়ি রাখাটা প্রবণতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশ্বকাপের জন্য ১৫ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। সেখানে ১৫ জন ক্রিকেটারের মধ্যে ১৩ জনের গালভর্তি দাড়ি।

আর কেউ ব্যাপারটা খেয়াল করুক বা না করুক, ঋষি কাপুর কিন্তু করেছেন। আর তিনি সেই ১৫ জনের স্কোয়াড-এর ছবি পোস্ট করে প্রশ্ন করেছেন, এমন দাড়ি রাখার প্রবণতার কারণটা কী? প্রাচীন ইজরায়েলিদের শেষ বিচারক স্যামসনের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারদের তুলনা করেছেন ঋষি কাপুর। শুধু মহেন্দ্র সিং ধোনি, হার্দিক পান্ডিয়া ও ভুবনেশ্বর কুমারের মুখে দাড়ি নেই। বাকি সব ভারতীয় ক্রিকেটারদের মুখভর্তি দাড়ি।