171 total views, 2 views today

ইচ্ছে থাকলেই সম্ভব। কথাটা আমরা তো হামেশাই বলে থাকি। অক্ষরে অক্ষরে পালন করি কি? কত কিছুর অজুহাতে লড়াইয়ের রাস্তা ছাড়ি আমরা। অনুপ্রেরণার অভাব হয়। না পাওয়ার অনুশোচনা, আফশোসে মন ভারি হয়ে যায়। ঠিক এই সময়তেই মনে হয় এমন মানুষদের উদ্ভব হয়। তাঁদের লড়াইয়ের এক-একটা কাহিনি অনুপ্রেরণার সাতকাহন লিখে দিয়ে যায়। না পাওয়া তো থাকবেই। কিন্তু সেই না পাওয়ার উর্ধ্বে উঠে লড়াইয়ের মন্ত্র জপতে পারাটাই জীবন।

সাধারণ চোখে দেখলে সে এক প্রতিবন্ধী কিশোর। যাঁর কনুই থেকে নিচের অংশ নেই। এবার এই প্রতিবন্ধকতার উর্ধ্বে উঠে দেখুন। মাত্র ১১ সেকেন্ডের একটি ভিডিও দেখুন। সেই প্রতিবন্ধী কিশোরের প্রতিবন্ধকতাকে জয় করার গল্প আপনাকে অনুপ্রেরণা জুগিয়ে দিতে পারে। কলকাতারই কোনও এক রাস্তার ছবি। ছেলেটির দুটি কনুইয়ের নিচের অংশ নেই। তার পরও অফুরন্ত উদ্দমে সে ক্রিকেট খেলছে। বোলিং করছে। কী অবিরাম সে জীবনীশক্তি! দুই হাতে কনুইয়ে সে চেপে ধরছে বল। তার পর ছুটে এসে বোলিং করছে। ক্রিকেট, জীবন, লড়াই- এক সুতোয় গেঁথে হাজির।

সেই অদম্য ইচ্ছাশক্তির অধিকারী কিশোরের ভিডিয়ো শেয়ার করেছিলেন ঋদ্ধিমান সাহা। মুহূর্তে যা ভাইরাল হয়ে যায়। ঋদ্ধিমান সাহা সেই ভিডিয়োর ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ”কোনও কিছুই তাঁকে ক্রিকেট খেলা থেকে আটকাতে পারছে না।”