1,662 total views, 1 views today

বাবা কিংবদন্তি ফুটবলার। এখন বিশ্বসেরা কোচদের একজন। এটাই যেন ক্যারিয়ারের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ছেলে লুকা জিদানের। ফ্রান্সের কিংবদন্তি ফুটবলার জিনেদিন জিদানের এই ছেলে ২০০৪ সাল থেকে রিয়াল মাদ্রিদে আছেন। ‍যুব ক্যারিয়ার পার করে নাম লিখিয়েছেন রিয়ালের মূল দলে। কিন্তু লুকার মূল দলে সুযোগ পাওয়ার এই ব্যাপারটি বিতর্কের মধ্যে ফেলে দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জিদানকে।

লা লিগায় শনিবার ওয়েসকার বিপক্ষে জিদান গোলকিপারের জার্সি দিয়েছিলেন তার ছেলে লুকাকে। ফ্রান্সের কিংবদন্তি তারকার এই ছেলের বয়স মাত্র ২০ বছর। অনেকেরই ধারণা জিদানের ছেলে বলেই রিয়ালের মতো বিশ্বখ্যাত দলে গোলরক্ষক হিসেবে খেলার সুযোগ হচ্ছে ২০ বয়সী লুকার। ব্যাপারটি বাবা ও ছেলে, দুজনকেই বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

সমালোচকরা বলছেন, নিজের ছেলে বলেই নাভাস-কুর্তুয়াকে বসিয়ে লুকাকে খেলিয়েছেন তিনি। এমন নয় যে সে ভীষণ অভিজ্ঞ। তার বয়স মাত্র ২০। সেখানে বিশ্বকাপ খেলা দুই জিনিয়াস গোলরক্ষককে বসিয়ে তাকে কীভাবে খেলান রিয়াল কোচ?

তবে সমালোচনাতে কিছু যায় আসে না জিদানের। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, যোগ্যতা দিয়েই দলে জায়গা পেয়েছে লুকা। তার ছেলে বলে যদি সমালোচনা হয় তা কানে তুলতে নারাজ রিয়াল কোচ। সে ছয় বছর বয়স থেকে এ ক্লাবের একাডেমিতে আছে। ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত প্রায় ১৬ বছর। এর পরও কেউ যদি বলে, ও আমার ছেলে বলে ওকে সুযোগ দিচ্ছি, তা হলে বলব তা ভুল।