বাংলাদেশ দলের কোচ স্টিভ রোডসকে নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবেই সব কিছুর অবসান ঘটে গেছে। নিজের শেষ বক্তব্য তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে। দলের প্রধান কোচ হিসেবে স্টিভ রোডসের দায়িত্ব শেষ হয়েছে চুক্তির মাঝপথেই। তার কাজের কিছু বিষয়ে বোর্ড সন্তুষ্ট না থাকায় চুক্তি শেষ হওয়ার বছরখানেক আগেই তাকে বিদায় বলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

চুক্তির মেয়াদ এক বছর বাকি থাকা সত্ত্বেও রোডসকে কেন চাকরিচ্যুত করা হল এ নিয়ে অনেক গুঞ্জনই ছিল ক্রিকেট অঙ্গনে। অবশেষে জানা গেছে মূল কারণ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন বোর্ডের সাথে কোচের দূরত্ব ও হুট করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের প্রবণতার কারণেই রোডসকে প্রধান কোচের পদ থেকে সরান হয়েছে।

নতুন কোচ

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের আসনটি এখন ফাঁকা। ভালোমানের কোচ পেতে মরিয়া বিসিবি। তখনই দলের ম্যানেজার ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন জানান দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশের কোচের দায়িত্ব পালন করতে চান তিনি। আর তার জন্য পরিচালকের দায়িত্ব ছাড়তেও রাজি আছেন সুজন। এক সাক্ষাৎকারে সুজন বলেন, ‘আমি বিসিবি পরিচালকের পদ ছাড়তে রাজি আছি যদি বোর্ড আমাকে দীর্ঘ মেয়াদে কোচের দায়িত্ব দিতে চায়। আগের বার যখন বোর্ড পরিচালক থাকাকালীন আমি অন্তবর্তীকালীন কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলাম তখন অনেক সমালোচনার শিকার হয়েছিলাম। তাই মনে করি, প্রধান কোচের দায়িত্ব পেলে পরিচালকের দায়িত্ব ছেড়ে দেয়াটা সঠিক সিদ্ধান্ত।’

সেই সময় তাঁর দায়িত্ব খুব বেশিদিন না থাকায় এবার লম্বা সময়ের জন্য দায়িত্ব চান তিনি। ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশের কোচ হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন এই সাবেক ক্রিকেটার। এমনটা নাহলে ২০২০ টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত থাকতে চান তিনি।