পাকিস্তানের জনপ্রিয় ক্রীড়া সাংবাদিক সেই তরুণী। নাম জয়নাব আব্বাস। পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) উপস্থাপকের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাঁকে। টেন স্পোর্টস এবং সনি ইএসপিএন-এর হয়ে কাজ করেন। আবার পাকিস্তানের প্রথম সারির পত্রিকা ‘দ্য ডন’-এ নিয়মিত কলাম লেখেন। সেই জয়নাব আব্বাস এবার বিতর্কের মুখ।

তাও বিশ্বকাপে। বিশ্বকাপ শুরুরদিন দুয়েক আগেই বাংলাদেশের চার তারকা ক্রিকেটার তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করছিলেন জয়নাব আব্বাস। বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা তাঁকে পছন্দ করতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু আচমকাই জয়নাবের জুতোর লোগো ঘিরে সমস্যা বিতর্ক তৈরি হল।

শুক্রবার সকালে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে আইসিসির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে। সেখানে পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ মিকি আর্থারের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জয়নাব আব্বাস। সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে জয়নাবের পায়ে একটি সাদা রঙের জুতো পরা রয়েছে। আর সেই জুতোর এক দিকে একটি লোগো। যা কি না অবিকল বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মতো দেখতে।

দুপাশে সবুজ। মাঝে বৃত্তাকার লাল অংশ। তার পর থেকেই জয়নাবের উপর চটেছেন বাংলাদেশী সমর্থকদের একাংশ। কেউ কেউ বলেছেন, বাংলাদেশকে হেয় করার জন্যই জয়নাব এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তবে কিছু সমর্থক তা মানতে নারাজ। তারা বলছেন, জয়নাব ইতালিয়ান ব্র্যান্ড গুচি-র জুতো পরেছেন। আর ওই সংস্থা এমন রঙের লোগো ব্যবহার করে থাকে। ফলে ব্যাপারটা নেহাতই স্বাভাবিক।

বিতর্ক অবশ্য থামেনি। কারণ, কিছু সমর্থকের যুক্তি, জনপ্রিয় গুচি ব্র্যান্ড যে চিহ্নটি ব্যবহার করে তাতে সবুজ রঙের তিনটি সরলরেখার মতো অংশ থাকে। আর মাঝখানে থাকা রেখাটি লাল। তবে জয়নাবের জুতোয় থাকা লোগো লক্ষ্য করে দেখা গিয়েছে, মাঝের লাল অংশটুকু বৃত্তের মতো। যেমনটা বাংলাদেশের পতাকাতে রয়েছে। আর তাতেই সমস্যা আরও বেড়েছে।

সুত্রঃ জি নিউজ ইন্ডিয়া