ভারতীয় দলের তারকা পেসার মহম্মদ শামির স্ত্রী হাসিন জাহানকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশের আমরোহার পুলিস। গভীর রাতে তিনি হাজির হয়েছিলেন মহম্মদ শামির পৈতৃক ভিটেয়। শুরু থেকেই আগ্রাসী মেজাজে ছিলেন হাসিন জাহান। মহম্মদ শামির মায়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এর পরই শামির বাড়ির তরফে পুলিসে খবর দেওয়া হয়।

উত্তরপ্রদেশের সহসপুরের আলি নগরে শামির বাড়ির সামনে থেকে হাসিনকে গ্রেফতার করে পুলিস। তাঁর বিরুদ্ধে শান্তিভঙ্গের অভিযোগ রয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫১ নম্বর ধারা অনুযায়ী হাসিনের নামে চার্জশিট গঠন করেছে পুলিস। জানা গিয়েছে, আজ সকালে হাসিনকে এসডিএম কোর্ট হাজির করা হয়েছে।

এর আগেও শামির পৈতৃক বাড়িতে গিয়েছিলেন হাসিন। শামির পরিবারে সদস্যদের বিরুদ্ধে এনেছিলেন একের পর এক গুরুতর অভিযোগ। কখনও শামির দাদা, কখনও তাঁর মা, হাসিনের নিশানা থেকে বাদ যাননি কেউই। এদিনও রাতের দিকে শামির বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন হাসিন। তার পরই শামির মায়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয় তাঁর। শামি এই মুহূর্তে আইপিএলে খেলার জন্য পাঞ্জাব শিবিরে রয়েছেন।

ছেলের অনুপস্থিতিতে হাসিনের বাড়িতে হানার ঘটনা মোটেই ভাল চোখে দেখেননি শামির মা ও পরিবারের অন্যরা। এমনকী শামির প্রতিবেশীরাও হাসিনের বিরুদ্ধে বয়ান দিয়েছেন বলে খবর।

শামির স্ত্রী হাসিন

হাসিনের পাল্ট দাবি, প্রভাব-প্রতিপত্তি খাটিয়ে শামি তাঁকে হেনস্থা করার চেষ্টা করছেন। হাসিন এদিন বলেন, ”যোগী আদিত্যনাথের সরকার এসব দেখছে না! নরেন্দ্র মোদীও দেখছেন না। প্রধানমন্ত্রী বেটি পড়াও, বেটি বাঁচাও স্লোগান দেন। আমিও তো বেটি। দিনের পর দিন আমার উপর অন্যায়, অবিচার হচ্ছে।

রাত বারোটার সময় আমাকে টেনে-হিঁচড়ে পুলিস তুলে নিয়ে আসছে। আমার ফোন কেড়ে নেওয়া হয়েছে। আমার গায়ে আঁচড়ের দাগও রয়েছে। শামি নিজের প্রভাব-প্রতিপত্তি খাটিয়ে আমাকে অপদস্থ করছে। আমি তো প্রতারিত হয়েছি। তার প্রতিবাদ করেছি। এটা কি অন্যায়?”