7,823 total views, 2 views today

চার-ছয়ের খেলা ক্রিকেট। ওভারে ওভারে এই খেলায় ম্যাচের ভাগ্য বদলায়। তবে ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেট আসার পর ক্রিকেটে ঘটতে শুরু করেছে নাটকীয় যত সব ঘটনা। যেমনা আবারো দেখা গেল সোমবার আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ম্যাচে।

প্রথমে ব্যাট করে দিল্লির করা ১৬৭ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভালোই দিচ্ছে পাঞ্জাব। ১৬.৩ ওভারে ৩ উইকেটে হারিয়ে ১৪৪ রান তুলেছে তারা। ম্যাচ জীততে শেষ ২১ বল থেকে প্রয়োজন মাত্র ২৩ রান। টি-টোয়েন্টির ভাষায় যা অত্যান্ত মামুলি বিষয়। ক্রিজে পাঞ্জাবের হয় ব্যাট করছেন দুই সেট ব্যাটসম্যান রিশাভ পান্ত (৩৯) আর কলিন ইনগ্রাম (৩৭)।

তবে এমন সময় ঘটে গেল এক নাটকীয় ঘটনা। দিল্লির বাকি সাত উইকেট পড়ে গেল মাত্র আট রানে। অথাৎ ১৪৪ রানে ৩ উইকেট হারানো পাঞ্জাব ১৫২ রানে অলআউট। যা আইপিএলের ইতিহাসে শেষ ৭ উইকেটে ঘটে সবচেয়ে বড় ব্যাটিং ধসের ঘটনা।

১৪৪ রানেই জোড়া উইকেট হারায় দিল্লি। পান্থের শামির বলে ক্নিন বোল্ডে হয়ে ফিরের পর তার জায়গায় ব্যাটিংয়ে নামা মরিস রান আউট হয়ে প্যাভিলনে ফিরে যান। এরপর দলীয় ১৪৭ রানে ক্রিজে অন্য সেট ব্যাটসম্যা্ন ইনগ্রামও সাজঘরের রাস্থা দেখান কুরান।

১৭.৪ ওভারের সময় কুরান প্রথমে কলিন ইনগ্রাম ও ওভারের শেষ বলে হার্ষল প্যাটেলকে প্যাভেলিয়নে ফিরিয়ো দেন। শেষ ওভারে বল করতে আসেন আবার তিনি। এ সময় প্রথম দুটি বল থেকেই রাবাদা ও লামচিানের উইকেট তুলে নিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন অভিষেকের পর আইপিএলে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামা স্যা্ম কুরান।

পাঞ্জাবের সব থেকে দামী ক্রিকেটার তিনিই। ২.২ ওভারে ১১ রান দিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচেই চার উইরকেট তুলে নিয়ে তাঁর চড়া দামের মূল্য দিলেন তিনি। এদিন দ্বাদশ আইপিএলে আসরে প্রথম হ্যাটট্রিক নিজে নাম করে নেন।