আজ আফগানিস্তানের মোকাবিলা করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দু’দলই আরও আগে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ায় শুধুমাত্র নিয়ম রক্ষার্থে মাঠে নামতে যাচ্ছে তারা। তবে নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় তুলে নিতে মরিয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অন্যদিকে, এবারের বিশ্বকাপের প্রথম জয় তুলে নিতে বদ্ধপরিকর আফগানিস্তানও।

এবারের বিশ্বকাপের প্রায় প্রতিটা ম্যাচেই নতুন বল হাতে তুলে নিয়েছিলেন মুজিব। ১৮ বছর বয়সী এই স্পিনার দলের অপরিহার্য এক অংশ। ব্রেক-থ্রু এনে দিতে তার জুড়ি মেলা ভার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং লাইনআপের সামনে তাই গুলবদিন নাইবের তুরুপের তাস হতে চলেছেন ওই মুজিবই।

শক্তি সামর্থ্যে আফগানিস্তান থেকে এগিয়ে থাকলেও মুখোমুখি লড়াইয়ে নবি-রশিদদের থেকে বেশ পিছিয়ে গেইল-হোল্ডাররা। এখন পর্যন্ত ৫ বারের দেখায় উইন্ডিজদের জয় যেখানে মাত্র ১টি, সেখানে আফগানদের জয় ৩ ম্যাচে। বাকি ১ ম্যাচ অমীমাংসিত অবস্থায় শেষ হয়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং ধারাবাহিকতাটা শুরু থেকেই নেই। শেষের কয়েকটি ম্যাচে লো অর্ডার ব্যাটসম্যানরা কিছুটা টেনেছেন। আর গত ম্যাচে নিকোলাস পুরানসহ ব্রাথওয়েট সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রাপ্তি কেবল এটা। পাকিস্তানের সাথে জয়ের পর আর কাউকে হারাতে পারেনি তারা। ওপেনার ক্রিস গেইলের সাথে কয়েকজন সঙ্গী বদলের পরও বড় সংগ্রহ আসেনি এই জায়গা থেকে। মাঝের সারির ব্যাটসম্যানরা বড় জুটি গড়তে ব্যর্থ হয়েছেন।

আজ তাদের সামনে থাকবেন আফগান স্পিন আক্রমণ। শুরুতে মুজিবকে দিয়ে বোলিং করাবেন গুলবাদিন। এরপর নবী ও রশিদের ওভার থাকবে। উড়িয়ে মারতে ওস্তাদ উইন্ডিজ দলের জন্য আজকের ম্যাচটিতে বড় সংগ্রহ করার সুযোগ রয়েছে। যদি গেইল-হেটমেয়ার-হোল্ডাররা দাঁড়াতে পারেন উইকেটে তাহলে রান-পাহাড় হবে উইন্ডিজদের।